• মামার বাড়িতে এসে জলে তলিয়ে গেল এক শিশু
  • আজ মহাষষ্টি, দেবীর অধিবাস
  • পুজোতে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা রাজধানী আগরতলায়
  • রক্তদান শিবির অনুষ্ঠিত শান্তিবাজারে
  • গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, তদন্তে পুলিশ
  • ম্যালেরিয়ায় মারণ থাবায় এক শিশুর মৃত্যু
  • নর্থ ইস্ট ফিনান্স ব্যাঙ্কের মহিলা ম্যানেজারের বিরুদ্ধে ১৭ লক্ষ টাকা গায়েবের অভিযোগ
  • চতুর্থীতেই জনজুয়ারে ভাসল আগরতলা
  • আধুনিকতার সাথে প্রযুক্তির সংমিশ্রণ হলে ত্রিপুরাকে মডেল রাজ্য হিসাবে গড়ে তুলতে পারবো: মুখ্যমন্ত্রী
  • রেলস্টেশন থেকে গাঁজা উদ্ধার
  • দুর্গাপূজা উপলক্ষে নতুন সাজে উঠেছে দুর্গাবাড়ি
  • জোরপূর্বক অর্থ আদায়ের অভিযোগে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা
  • বগাফা ব্লকের ত্রিস্তর পঞ্চায়েত নির্বাচনে ৭ প্রতিনিধিদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান
  • আগরতলা ১৪ অক্টোবর (এ.এন.ই ): শনিবার বগাফা ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতি হল রুমে ত্রিস্তর পঞ্চায়েত নির্বাচনে নির্বাচিত ৭ জন প্রতিনিধিদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। জানা গেছে, শপথ বাক্য পাঠ করান জেলা পঞ্চায়েত অফিসার কমিসনার কলই। জানা গেছে, বগাফা ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতির চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হন দেবাশীষ মজুমদার এবং ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে ত্রিকেন্দ্র ত্রিপুরা নির্বাচিত হয়েছেন। জানা গেছে, শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সাব্রুমের বিধায়ক শংকর রায়, বগাফা ব্লকের বিডিও প্রদীপ সরকার, জেলা পঞ্চায়েত অফিসার কমিসনার কলই প্রমুখ। শপথ বাক্য পাঠ করার পর দেবাশিষ বাবু জানায়, শপথ বাক্য পাঠ করার পর দেবাশীষ বাবু জানায় তিনি দশমত নির্বিশিষে সকলের উন্নয়নের জন্য কাজ করবেন।
  • রাজ্যের আইন শৃঙ্খলার পরিস্থিতি নিয়ে পুলিশ মহানির্দেশকের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক মুখ্যমন্ত্রীর
  • শারদোৎসবের প্রাক মুহূর্তে বোমা বিস্ফোরণে কেপে উঠল আসাম, সর্তকতা জারি রাজ্যেও
  • শারদ উৎসবে রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রীর শুভেচ্ছা
  • শ্রীনগর থেকে ৬ জুয়ারি আটক
  • চকোলেটের মণ্ডপ এমবিবি ক্লাবে
  • কুখ্যাত নেশা কারবারি গ্রেপ্তার
  • রেলে কাটা পরে যুবকের মৃত্যু
  • ধলাইয়ে প্রতিবন্ধী পুনর্বাসন কেন্দ্রে প্রবীণদের চিকিৎসা পরিষেবা
  • পূর্বাশার আর্থিক আয় বাড়াতে সরকারের নয়া সিদ্ধান্ত
  • শহরের সাথে পাল্লা দিয়ে মহকুমার পুজো প্রস্ততি চলছে জোর কদমে
  • অপরাধ দমনে ক্রাইম ব্রাঞ্চকে আধুনিকরণের উদ্যোগ রাজ্য সরকারের

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ঘরেই বানিয়ে নিন লাইটিং লেন্টার্ন

ত্বকের উজ্বলতার জন্য ২০টি টিপস

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

ত্রিপুরা খবর

00310
0057
0057
0057
0057
আজ ভ্যালেন্টাইন ডে

আগরতলা, ১৪ই ফেব্রুয়ারি (এ.এন.ই ): আজ লাল গোলাপের উৎসব, নাকি আকন্দ-ধুতরোয় ব্রতপালন—কার দিকে পাল্লা ভারী, তা নিয়ে মুখরোচক চর্চা সর্বত্র। সব মিলিয়ে ভক্তি আর ভালোবাসার মিলমিশেই আজ রাজ্যে সরকারি ছুটির দিন। উপভোগেরও দিন।
'ভ্যালেন্টাইন ডে’ এর ইতিহাস কীরকম? একটু জেনে নেওয়া যাক। ২৭০ খ্রিষ্টাব্দের কথা। তখন রোমান সম্রাট দ্বিতীয় ক্লডিয়াস নারী-পুরুষের বিবাহ বাধনে আবদ্ধ হওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিলেন। তার ধারণা ছিল, বিবাহ বাধনে আবদ্ধ হলে যুদ্ধের প্রতি পুরুষদের অনীহা সৃষ্টি হয়। সে সময় রোমের খ্রিষ্টান গির্জার পুরোহিত ‘ভ্যালেন্টাইন’ রাজার নির্দেশ অগ্রাহ্য করে গোপনে নারী-পুরুষের বিবাহ বাধনের কাজ সম্পন্ন করতেন। এ ঘটনা উদ্ঘাটিত হওয়ার পর তাকে রাজার কাছে ধরে নিয়ে আসা হয়। ভ্যালেন্টাইন রাজাকে জানালেন, খিষ্টধর্মে বিশ্বাসের কারণে তিনি কাউকে বিবাহ বাধনে আবদ্ধ হতে বারণ করতে পারেন না। রাজা তখন তাকে কারাগারে নিক্ষেপ করেন। কারাগারে থাকা অবস্খায় রাজা তাকে খ্রিষ্টান ধর্ম ত্যাগ করে প্রাচীন রোমান পৌত্তলিক ধর্মে ফিরে আসার প্রস্তাব দেন এবং বিনিময়ে তাকে ক্ষমা করে দেয়ার কথা বলেন। উল্লেখ্য, রাজা দ্বিতীয় ক্লডিয়াস প্রাচীন রোমান পৌত্তলিক ধর্মে বিশ্বাস করতেন এবং তৎকালীন রোমান সাম্রাজ্যে এ ধর্মের প্রাধান্য ছিল। যা হোক, ভ্যালেন্টাইন রাজার প্রস্তাব মানতে অস্বীকৃতি জানালেন এবং খ্রিষ্ট ধর্মের প্রতি অনুগত থাকার কথা পুনর্ব্যক্ত করলেন। তখন রাজা তাকে মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশ দেন। অত:পর রাজার নির্দেশে ২৭০ খ্রিষ্টাব্দের ১৪ ফেব্রুয়ারি ভ্যালেন্টাইনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। পরে রোমান সাম্রাজ্যে খ্রিষ্ট ধর্মের প্রাধান্য সৃষ্টি হলে গির্জা ভ্যালেন্টাইনকে `সেন্ট' হিসেবে ঘোষণা করে। ৩৫০ সালে রোমের যে স্খানে ভ্যালেন্টাইনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছিল সেখানে তার স্মরণে একটি গির্জা নির্মাণ করা হয়। অবশেষে ৪৯৬ খ্রিষ্টাব্দে খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের ধর্মগুরু পোপ গ্লসিয়াস ১৪ ফেব্রুয়ারিকে `ভ্যালেন্টাইন্স ডে’ হিসেবে ঘোষণা করেন। ভ্যালেন্টাইন কারারক্ষীর যুবতী মেয়েকে ভালোবাসার কারণে খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের ধর্মগুরু পোপ গ্লসিয়াস ১৪ ফেব্রুয়ারিকে ‘ভ্যালেন্টাইন ডে’ ঘোষণা করেননি। কারণ, খ্রিষ্ট ধর্মে পুরোহিতদের জন্য বিয়ে করা বৈধ নয়। তাই পুরোহিত হয়ে মেয়ের প্রেমে আসক্তি খ্রিষ্ট ধর্মমতে অনৈতিক কাজ। তা ছাড়া, ভালোবাসার কারণে ভ্যালেন্টাইনকে কারাগারে যেতে হয়নি। কারণ, তিনি কারারক্ষীর মেয়ের প্রেমে পড়েছিলেন কারাগারে যাওয়ার পর। সুতরাং, ভ্যালেন্টাইনকে কারাগারে নিক্ষেপ ও মৃত্যুদণ্ডদানের সাথে ভালোবাসার কোনো সম্পর্ক ছিল না। তাই ভ্যালেন্টাইনের কথিত ভালোবাসা সেন্ট ভ্যালেন্টাইন ডে’র মূল বিষয় ছিল না। বরং ধর্মের প্রতি গভীর ভালোবাসাই তার মৃত্যুদণ্ডের কারণ ছিল।


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.