• মামার বাড়িতে এসে জলে তলিয়ে গেল এক শিশু
  • আজ মহাষষ্টি, দেবীর অধিবাস
  • পুজোতে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা রাজধানী আগরতলায়
  • রক্তদান শিবির অনুষ্ঠিত শান্তিবাজারে
  • গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, তদন্তে পুলিশ
  • ম্যালেরিয়ায় মারণ থাবায় এক শিশুর মৃত্যু
  • নর্থ ইস্ট ফিনান্স ব্যাঙ্কের মহিলা ম্যানেজারের বিরুদ্ধে ১৭ লক্ষ টাকা গায়েবের অভিযোগ
  • চতুর্থীতেই জনজুয়ারে ভাসল আগরতলা
  • আধুনিকতার সাথে প্রযুক্তির সংমিশ্রণ হলে ত্রিপুরাকে মডেল রাজ্য হিসাবে গড়ে তুলতে পারবো: মুখ্যমন্ত্রী
  • রেলস্টেশন থেকে গাঁজা উদ্ধার
  • দুর্গাপূজা উপলক্ষে নতুন সাজে উঠেছে দুর্গাবাড়ি
  • জোরপূর্বক অর্থ আদায়ের অভিযোগে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা
  • বগাফা ব্লকের ত্রিস্তর পঞ্চায়েত নির্বাচনে ৭ প্রতিনিধিদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান
  • আগরতলা ১৪ অক্টোবর (এ.এন.ই ): শনিবার বগাফা ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতি হল রুমে ত্রিস্তর পঞ্চায়েত নির্বাচনে নির্বাচিত ৭ জন প্রতিনিধিদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। জানা গেছে, শপথ বাক্য পাঠ করান জেলা পঞ্চায়েত অফিসার কমিসনার কলই। জানা গেছে, বগাফা ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতির চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হন দেবাশীষ মজুমদার এবং ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে ত্রিকেন্দ্র ত্রিপুরা নির্বাচিত হয়েছেন। জানা গেছে, শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সাব্রুমের বিধায়ক শংকর রায়, বগাফা ব্লকের বিডিও প্রদীপ সরকার, জেলা পঞ্চায়েত অফিসার কমিসনার কলই প্রমুখ। শপথ বাক্য পাঠ করার পর দেবাশিষ বাবু জানায়, শপথ বাক্য পাঠ করার পর দেবাশীষ বাবু জানায় তিনি দশমত নির্বিশিষে সকলের উন্নয়নের জন্য কাজ করবেন।
  • রাজ্যের আইন শৃঙ্খলার পরিস্থিতি নিয়ে পুলিশ মহানির্দেশকের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক মুখ্যমন্ত্রীর
  • শারদোৎসবের প্রাক মুহূর্তে বোমা বিস্ফোরণে কেপে উঠল আসাম, সর্তকতা জারি রাজ্যেও
  • শারদ উৎসবে রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রীর শুভেচ্ছা
  • শ্রীনগর থেকে ৬ জুয়ারি আটক
  • চকোলেটের মণ্ডপ এমবিবি ক্লাবে
  • কুখ্যাত নেশা কারবারি গ্রেপ্তার
  • রেলে কাটা পরে যুবকের মৃত্যু
  • ধলাইয়ে প্রতিবন্ধী পুনর্বাসন কেন্দ্রে প্রবীণদের চিকিৎসা পরিষেবা
  • পূর্বাশার আর্থিক আয় বাড়াতে সরকারের নয়া সিদ্ধান্ত
  • শহরের সাথে পাল্লা দিয়ে মহকুমার পুজো প্রস্ততি চলছে জোর কদমে
  • অপরাধ দমনে ক্রাইম ব্রাঞ্চকে আধুনিকরণের উদ্যোগ রাজ্য সরকারের

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ঘরেই বানিয়ে নিন লাইটিং লেন্টার্ন

ত্বকের উজ্বলতার জন্য ২০টি টিপস

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

লাইফস্টাইল

00310
0057
0057
0057
0057
ভোরে ঘুম থেকে ওঠার উপায় জেনে নিন

২৪ জানুয়ারি (এ.এন.ই ): ভোরে ঘুম থেকে ওঠা ব্যক্তিরা বেলা করে ঘুম থেকে ওঠা ব্যক্তিদের তুলানায় বেশি সফল বলে এক গবেষনায় দেখা গেছে। কারণ, সকালে ঘুম থেকে তাড়াতাড়ি উঠতে পারলে কাজ এবং অবসর দুটোর জন্যই অনেক বেশি সময় পাওয়া যায়। কিন্তু লাগামছাড়া ঘুমটাকে যেন কিছুতেই বশ মানানো যায় না। হ্যাঁ, অসংখ্য পরিশ্রমী মানুষ এই সমস্যাতেই ভুগছেন। তবে এই সমস্যা সমাধানের কিছু সহজ উপায় আছে যার মাধ্যমে দেখতে পাবেন ভোরের আলো আর জীবনে পাবেন সাফল্য। আসুন জেনে নেই, সকালে ঘুম থেকে ওঠার উপায়। ১. ঘুমকে প্রাধান্য দিন : যেকোনো অজুহাতের কারণে রাতে ঘুমাতে যেতে দেরি হয় আপনার। কিন্তু চেষ্টা করুন প্রতিদিন রাতে তাড়াতাড়ি ও একই সময়ে ঘুমানোর এবং জেগে ওঠার। ২. প্রথমে একটি পদক্ষেপ নিন : আপনার লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য সময় নির্ধারণ করুন এবং ছোট ছোট পদক্ষেপ নিন। প্রথম দিন আপনার নিয়মিত ঘুমানোর সময়ের চেয়ে ১৫ মিনিট পূর্বে ঘুমাতে যান এবং ১৫ মিনিট আগে ঘুম থেকে জেগে উঠোন। পরদিন ৩০ মিনিট আগে ঘুমান। এভাবে আস্তে আস্তে সময় বাড়াতে পারেন। ৩. দুপুরের তন্দ্রাকে এড়িয়ে চলুন : যদি ডাক্তারের পরামর্শ না থাকে তাহলে দুপুরে ঘুমাবেন না। কারণ দুপুরের ঘুমের কারণেই রাতে দেরিতে ঘুম আসে এবং সকালে ওঠতেও দেরি হয়। তাই দুপুরের ঘুমকে এড়িয়ে যাওয়ার জন্য দুপুরে কাজ করুন বা শখের কাজের সাথে নিজেকে সংযুক্ত করুন। ৪. চক্রটিকে ভাঙ্গুন : আপনি দেরিতে ঘুমাতে যান এবং ঘুম থেকে দেরিতে ওঠেন– আপনার এই ঘুম চক্রটি থেকে বের হওয়া প্রয়োজন। এর জন্য জোর করে হলেও একই সময়ে ঘুমাতে যান এবং ঘুম থেকে জেগে উঠুন। ঘুমাতে যাওয়ার আগে ১ গ্লাস উষ্ণ দুধ পান করুন, ব্যায়াম করুন। এ কাজগুলো আপানাকে তাড়াতাড়ি ঘুমাতে সাহায্য করবে। ৫. কফি খাওয়া নিয়ন্ত্রণ করুন : দুপুরের পর বা বিকাল থেকে ক্যাফেইন খাওয়ার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে আনবেন। এক গবেষণায় বলা হয়, ৪০০ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন খেলে ৬ ঘণ্টা পর তা ঘুমের সমস্যা করে। স্বাভাবিক আকারের এক কাপ কফিতেই এ পরিমাণ ক্যাফেইন থাকে। বিকাল ৫টার আগে থেকেই কফি খাওয়া বন্ধ করা উচিত। ৬. সঠিক পরিবেশ তৈরি করুন : রাতে ঘুমানোর পূর্বে ক্যামোমিল বা ল্যাভেন্ডার এর চা পান করুন বা বই পড়ুন যা আপনাকে শান্ত করতে সাহায্য করবে। প্রতিরাতে এর পুনরাবৃত্তি করুন। সময়ের সাথে সাথে আপনার শরীর এই নিয়মের সাথে অভ্যস্ত হয়ে উঠবে এবং আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন কখন আপনার বই বন্ধ করা উচিৎ এবং আপনার ঘুমও চলে আসবে। আপনার ঘরের পরিবেশ ও ঘুম আসার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যদি আপনার শোয়ার ঘরটি পরিষ্কার-পরিছন্ন থাকে তাহলে আপনার মন শিথিল থাকবে এবং দ্রুত ঘুম চলে আসবে। ৭. সকালের কাজ ঠিক করুন : সকালে করতে হবে এমন কিছু কাজের তালিকা করুন। এর ফলে আপনার ঘুম থেকে ওঠার প্রেরণা তৈরি হবে। ৮. দয়িত্ব দিয়ে দিন : সকালে ঘুম থেকে ওঠাতে পরিবারের অন্য কোনো সদস্যকে দায়িত্ব দিন। অনেকে অ্যালার্ম ঘড়ির শব্দেও উঠতে পারেন না। কিংবা অ্যালার্ম বন্ধ করে আবারো ঘুমিয়ে পড়েন। এ ক্ষেত্রে বাড়ির কোনো সদস্য আপনাকে উঠতে বাধ্য করবেন। ৯. ধৈর্য ধরুন : একবার ব্যর্থ হলেই চিন্তিত হবেন না। চেষ্টাই হবে আপনার কৌশল। আপনার শরীর হয়তো নির্দিষ্ট ঘুমের ধরনের প্রতি অভ্যস্ত হয়ে গেছে, নতুন অভ্যাস তৈরি করতে কিছুটা সময়তো লাগবেই। তাই আপনার শরীরকে নতুন অভ্যাস আয়ত্তে নিতে সময় দিন। প্রথম দিনই হয়তো আপনি ব্যর্থ হবেন, কিন্তু সপ্তাহ শেষে দেখবেন যে নতুন এই অভ্যাসে অভ্যস্ত হয়ে ওঠেছে আপনার শরীর।


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.